[google-translator]
আবহাওয়া:
anindabangla

২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , বৃহস্পতিবার , ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

অনিন্দ্যবাংলা ডেস্ক: গণটিকা কার্যক্রমের পঞ্চম দিনে এসে সারা দেশে আজ করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন দুই লাখের বেশি মানুষ। এ পর্যন্ত ৫ লাখ ৪২ হাজার মানুষ করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এসব তথ্য জানানো হয়।

এদিকে আজ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, টিকাদানকেন্দ্রে গিয়ে তাৎক্ষণিক নিবন্ধন করে টিকা নেওয়ার সুবিধা আপাতত বন্ধ থাকবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, আজ সারা দেশে টিকা নিয়েছেন ২ লাখ ৫ হাজার ৫৪০ জন। এর মধ্যে ৬৪ হাজার ৩৮৮ জন নারী। আজ ঢাকা নগরীতে টিকা নিয়েছেন ২৪ হাজার ৪৫৩ জন। এর মধ্যে নারী ৮ হাজার ২৯ জন। গত ২৭ জানুয়ারি থেকে আজ পর্যন্ত সারা দেশে করোনার টিকা নিয়েছেন ৫ লাখ ৪২ হাজার ৩০৯ জন। এর মধ্যে নারী ১ লাখ ৫৫ হাজার ৭৩১ জন।

ঢাকার মধ্যে সবচেয়ে বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে রাজারবাগের কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে। এখানে ১ হাজার ৭২০ জনকে টিকা দেওয়া হয়। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ১ হাজার ৫৭ জনকে, মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১ হাজার ২৯৯ জনকে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১ হাজার ১৩৮ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। ঢাকা মহানগরীতে সবচেয়ে কম টিকা দেওয়া হয়েছে মিরপুরের লালকুঠি হাসপাতালে। এখানে ৪০ জনকে করোনার টিকা দেওয়া হয়।

তাৎক্ষণিক নিবন্ধন আপাতত বন্ধ

করোনাভাইরাসের টিকা নিতে টিকাদানকেন্দ্রে গিয়ে তাৎক্ষণিক নিবন্ধনের সুবিধা আপাতত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, নিবন্ধন না করেও অনেকে টিকা নিতে আসায় বিভিন্ন কেন্দ্রে অতিরিক্ত ভিড় তৈরি হচ্ছে।

জাহিদ মালকে জানান, এ পর্যন্ত ১০ লাখের বেশি মানুষ টিকা নেওয়ার জন্য নিবন্ধন করেছেন। তিন লাখের বেশি মানুষ ইতিমধ্যে টিকা নিয়েছেন। কিন্তু টিকাদান কার্যক্রম ঠিকভাবে চালাতেই আপাতত ওই সুবিধা বন্ধের সিদ্ধান্ত তাঁরা নিয়েছেন।
এখন থেকে যাঁরা নিবন্ধন করে কেন্দ্রে যাবেন, শুধু তাঁদের টিকা দেওয়া হবে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ভবিষ্যতে যদি টিকাদানকেন্দ্রে নিবন্ধনের প্রয়োজন পড়ে, তখন আবার জানানো হবে।

টিকা নিয়ে মানুষের দ্বিধা কেটে গেছে মন্তব্য করে জাহিদ মালেক বলেন, যেসব জায়গায় আগে ভিড় কম ছিল। এখন সেখানে অনেক ভিড়। অনেক লোক যাচ্ছেন, মানুষের আত্মবিশ্বাস বাড়ছে। এখন সবাই টিকার ওপর আস্থা নিয়ে তা নিতে যাচ্ছেন।





Top