আবহাওয়া:
anindabangla

২৫শে মে, ২০২০ ইং , সোমবার , ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

অনিন্দ্যবাংলা ডেস্ক: করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মেয়র ইকরামুল হক টিটুর পরিকল্পনা, গৃহিত পদক্ষেপ এবং বাস্তবায়িত সামাজিক উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে কানাডার প্রেসিডেন্ট জাস্টিন ট্রুডোর সাথে তুলনা করেছেন  বিশিষ্ট ভিজুয়াল আর্টিস্ট, তথ্য প্রযুক্তিবিদ ও সাংবাদিক শেখ অনিন্দ্যমিন্টু, নারী উদ্যোক্তা ও ফ্যাশন ডিজাইনার জান্নাতুল ফেরদৌস রানু , যুবলীগ কর্মী নাজমুল রিপন।

বিশ্ব সংকট করোনা মোকাবেলায় ময়মনসিংহ সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু , সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়েও নগরবাসীকে সচেতন করার জন্য রাস্তায় নেমেছেন, দাঁড়িয়েছেন সর্বস্তরের জনগণের পাশে। বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন প্রয়োজনীয় সকল কর্মসূচী। এসব কর্মসূচী নাগরিক সেবায় নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে ময়মনসিংহ সিটি তথা বিশ্ব ইতিহাসে।

২০১৯ সালে সারাদেশে যখন ডেঙ্গু মহামারী আকার ধারণ করে, তখন আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ায় ৩ লাখ, মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়ে যায় শতাধিক। সে সময় ময়মনসিংহ নগরীর ১ জনও ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়নি। এডিস মশার বিস্তার রোধে রেখে ছিলেন বৈপ্লবিক ভুমিকা।  মেয়র ইকরামুল হক টিটুর ঐকান্তিক পরিশ্রম, প্রচেষ্টা, সঠিক কর্মপরিকল্পনা ও যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনকে সম্পূর্ণভাবে ডেঙ্গু মুক্ত রাখা সম্ভব হয়েছিল।

করোনা নিয়ে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন, সারা বিশ্ব করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়েছে। আসুন আমরা করোনা ভাইরাস নিয়ে আতংকিত না হয়ে সচেতন হই। একমাত্র সচেতনতাই পারে এ ভাইরাসের সংক্রমণ ও ক্ষতি কমাতে।

নাগরিকদের করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা ও তাদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যতিক্রমী নানা উদ্যোগ নিয়েছেন মেয়র  ইকরামুল হক টিটু। করোনা প্রতিরোধে প্রতিদিন ভিন্ন ভিন্ন উপায়ে কাজ করে যাচ্ছে সিটি কর্পোরেশনের বিশেষ টিম। বাস্তবায়িত কর্মসূচীর মধ্য রয়েছে – ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনে স্থাপিত করোনা সেল। হটলাইনের মাধ্যমে এই সেল থেকে সরবরাহ করা হচ্ছে করোনা বিষয়ে নানান তথ্য। পাশাপাশি নগরীর ৩৩টি ওয়ার্ডে, ২ শতাধিক পয়েন্টে  হাত ধোয়ার জন্য পানি ও সাবানের ব্যবস্থা । সবার মাঝে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার , স্বাস্থ্য কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকদের মাঝে পিপিই বিতরণ। শহরের রাস্তা-ঘাট, ড্রেন-ফুটপাথ, পাড়া-মহল্লাসহ গুরুত্বপূর্ণ প্রাতিষ্ঠানিক ও বাণিজ্যিক স্থাপনায় জীবাণুনাশক ছিটানো। নাগরিক সচেতনতায় হ্যান্ডবিল ও লিফলেট বিতরণ। করোনা প্রতিরোধে মাইকে প্রচারণা। সিটি কর্পোরেশন এলাকার ভেতরে সকল প্রকার গণ পরিবহণ, ইজিবাইক, রিকশা চলাচল বন্ধ ঘোষণা সহ সকল প্রকার যান-বাহন পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

ডাক্তারদের সুরক্ষায় এবং করোনা মোকাবেলায় হাসপাতালগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জন্য ১০০ পিপিই এবং ৫০০হ্যান্ড স্যানিটাইজার, এবং সিভিল সার্জনকে ৩০০ হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং ৫০ পিপিই দেয়া হয়। এ সময় মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, যারা (ডাক্তার) সকলের সুরক্ষার কাজে নিয়োজিত তাদের সুরক্ষিত রাখা সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ। কারন তারা অসুস্থ হলে আমাদের সকলের চিকিৎসা ঝুঁকিতে পড়বে।  চলমান সাধারন ছুটিতে যারা ঢাকা থেকে এসেছেন তাদের সকলকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার বিষয়েও গুরুত্বারোপ করেন সিটি কর্পোরেশন মেয়র। পিপিই ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণকালীন প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এইচ কে দেবনাথ, জনসংযোগ কর্মকর্তা শেখ মহাবুল হোসেন রাজীব, খাদ্য ও স্যানিটেশন কর্মকর্তা  দিপক মজুমদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

২০ সদস্যের চারটি গ্রুপে প্রধান প্রধান সড়কগুলোতে একযোগে হ্যান্ড স্প্রে মেশিনের মাধ্যমে বন্ধ দোকানপাটের সাটার গ্রিল ও চলমান অটো রিক্সার

(জরুরী প্রয়োজনে চলাচলকারী) হাতলে জীবানুনাশক ছিটানো হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে জন সমাগম হয় এমন স্থানগুলোকে প্রাধান্য দিয়ে শুরু করা হয়েছে সকল সড়ক ও ফুটপাত পরিচ্ছন্ন করা। মসিক মেয়রের উদ্যোগে এখন থেকে প্রতিদিনই নিয়মিত চলবে এ অভিযান ।

বাড়ির মালিকরা নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ভবনে বসবাসকারী সবার জন্য হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করলে পানি বিলের অর্ধেক মওকুফের ঘোষণা দিয়েছে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন । করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সব বাড়িওয়ালাকে উৎসাহিত করতে এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান মসিক মেয়র। তিনি সকল নাগরিকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, নিজ নিজ বাড়ির আঙিনা এবং বহুতল বিশিষ্ট ভবনের কার পার্কিং এলাকাগুলো ২০ কেজি পানি এবং ন্যূনতম ২ চা চামচ ব্লিচিং পাউডার মিশ্রিত করে ছিটিয়ে নিরাপদ রাখুন।

মারাত্মক ছোঁয়াচে করোনা ভাইরাস থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার লক্ষ্যে অবশ্যই নিজ গৃহে অবস্থান করুন, শুধুমাত্র চিকিৎসা, ঔষধ এবং খাদ্যদ্রব্যসহ অতি জরুরী প্রয়োজনে বের হতে হলে মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস, ফুল শার্ট ইত্যাদি ব্যক্তিগত সুরক্ষা নিশ্চিত করুন। ব্যবহৃত মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস নির্দিষ্ট স্থানে ফেলুন অথবা আগুনে পুড়িয়ে ফেলুন। পরিধেয় পোষাকসমূহ প্রত্যেকদিন ধুয়ে নিন। নিজে সুস্থ থাকুন অন্যকে সুস্থ রাখুন। 

সামাজিক দূরত্ব, প্রয়োজনীয় সচেতনতা ও ব্যক্তিগত দায়িত্ববোধ বিষয়ে ফেসবুক পোস্টে তিনি বলেন, খোলাবাজারে নগরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে বিক্রয় হচ্ছে পেঁয়াজ, ভ্রাম্যমান এই পয়েন্টগুলো থেকে পেঁয়াজ কেনার জন্য মানুষের যে অসম প্রতিযোগিতা তা আমাদেরকে প্রতিনিয়ত ভাবিয়ে তুলছে, আমাদের মনে রাখতে হবে করোনা ভাইরাস থেকে নিরাপদ থাকতে হলে অবশ্যই ব্যক্তিগত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, নিরাপত্তা এবং নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। একবেলা পেঁয়াজ না খেলেও বেঁচে থাকার জন্য কোন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হবে না কিন্তু আমাদের এই অসম প্রতিযোগিতা বা অসচেতনতা ডেকে নিয়ে আসতে পারে ভয়াবহ বিপদ। তাই কোরোনা ভাইরাসের এই ভয়াবহ বিপদ থেকে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে, তবেই হয়তোবা সৃষ্টিকর্তার রহমতে আমরা সকলেই ভালো থাকবো। গতকালকে পেঁয়াজ কেনার জন্য প্রচণ্ড ভিড়ের মধ্যে কয়েকটি স্পটে দাঁড়িয়ে হ্যান্ডমাইকে সচেতন হবার আহ্বান জানান। 

এ ছাড়া সমাজের হত দরিদ্র, খেটে খাওয়া মানুষের জন্য পরিবার অনুযায়ী সংশিষ্টদের সহযোগিতায় নিত্য প্রয়োজনীয় খাবার সামগ্রী বিতরণ করেন। চলমান পরিস্থিতি মোকাবিলায় সবসময় তাদের পাশে থেকে সাধ্যানুযায়ী দেয়ার আশ্বাস দিয়ে বলেন, বিগত সময়ের মত এ সমস্যা থেকে আমরা উত্তরণ পাবো ইনশাল্লাহ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মেয়র টিটু সম্পর্কে সচেতন মহল যা বলেন –

রাসেল সাইফুল ইসলাম – অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের নগর পিতা কে যিনি সর্বাতক চেষ্টা করে নগরবাসীকে সুস্থ ও ভাল রাখার জন্য আপ্রান চেষ্টা করে যাচ্ছে।
ধন্যবাদ নগর পিতা জনাব ইকরামুল হক টিটু ভাই কে💕

Md Nasir Uddin Hiraময়মনসিংহ বাসীর আস্থা আর ভালোবাসার আরেক নাম জননেতা জনাব- মোঃ ইকরামুল হক টিটু ভাই। প্রিয় নেতা আপনার এই নিরলস প্রচেষ্টা আপনাকে অধিষ্ঠিত করবে উচ্চ থেকে উচ্চতর সম্মানে।

মুগ্ধ মেঘ – আপনার জন্য সব সময় দোয়া ভালোবাসা ও শুভ কামনা ভাইয়া।আপনার আদর্শটাকে খুব ভালোবাসি।একটা মানুষ নিজের জীবনের সুখ শান্তির কথা না ভেবে,,সকল মানুষের ভালোটা আগে ভাবে।উনার কথা বললে কম বলা হবে।আপনার তুলনা আপনি নিজেই ভাইয়া।
একটা বাবা যেমন সন্তানের মঙ্গলের জন্য সব কিছু করে,,,আপনিও তার থেকে এক বিন্দুও কম নয় ভাইয়া।দোয়া করি হাজার বছর বেঁচে থাকুন।আল্লাহ সর্বদা সুস্থতা দান করুন আপনাকে।

MD Hasnat Jaman Sobuj – আজ এই চরম মূহুর্তে আপনার কর্মকাণ্ড সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।আমার মনে হয় আগামী দিনে আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী আপনিই থাকবেন। যারা আজ মাঠে নেই তাঁরা হারিয়ে যাবে সময়ের স্রোতে।

Rajaul Karim Apu – জনপ্রতিনিধির দায়িত্বের পাশাপাশি মানবতার এক মহানায়ক ও মানবতার ফেরিওয়ার পরিচয় দিয়ে নগরবাসীর নিরাপদে রাখতে নিজের জীবন ঝুঁকিতে রেখে অক্লান্ত পরিশ্রম করে সেবা দিতে যাচ্ছেন আমাদের নগরপিতা জনাব মোঃ ইকরামুল হক টিটু মহোদয় ❤️
সেলুট অভিবাবক আপনাকে 👏👏

Asadojjaman Piashআপনার অক্লান্ত চেষ্টায় আমরা ময়মনসিংহ নগরবাসী কৃতজ্ঞ।
আপনি সুস্থ থাকলেই সুস্থ থাকবে নগরবাসী। মহান আল্লাহ পাক এই প্রাণ ঘাতী করোনা ভাইরাস থেকে সকলেই হেফাজত করুক। প্রিয় অভিভাবক আপনার প্রতি দোয়া ও দীর্ঘায়ু কামনা রইলো।

মোঃ মাহমুদুল হাসান সবুজ – একজন প্রকৃত মানব প্রেমিক মানুষ যিনি নিজের কি হবে না হবে তার তোয়াক্কা না করেই জনতার কল্যাণে নিজেকে সর্বদা নিয়োজিত রেখেছেন তিনি বৃহত্তর ময়মনসিংহের আপামর জনসাধারণের বিশ্বস্ত বন্ধু জনবন্ধু জননেতা জনাব মোঃ ইকরামুল হক টিটু ভাই।

MD Niamul Islam – স্যার আপনার প্রশংসা যতই করি তারপরও মনে হয় অনেক কম হয়ে গিয়েছে।যদি আপনার মতো মানবতার তরে নিজেকে সোপর্দ করতে পারতাম তবে নিজের জীবন ধন্য হয়ে যেতো।প্রতিটি মানুষের জীবন ও কর্ম আপনার মত হওয়া দরকার।আপনি হচ্ছেন জনগণের পরিবর্তন এর উন্নয়ন এর রোল মডেল।আপনি আমাদের শহরের একজন ভালোলাগা ও ভালোবাসার মানুষ,হ্রদয়ের স্পন্দন।

আপনার মতো একজন নেতৃত্ব সত্যিই অনুকরনীয়। এই বিপদের দিনে সামনে থেকে যেভাবে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন দুর্যোগ মোকাবেলায় তা নিসন্দেহে প্রসংশার দাবিদার। একা একজন মানুষ নিজের পরিবারের মতো আগলে রেখেছে ময়মনসিংহ সিটি কে। ধন্যবাদ সত্যিই ভালো কিছুর অনুপ্রেরণা পাই আপনার কাছ থেকে…
ময়মনসিংহ সিটি বাসী সত্যি একজন ভালো মনের জনপ্রতিনিধি সুযোগ্য মেয়র পেয়েছি । বিপদে আপদে রাষ্ট্রীয় প্রাকৃতিক দুর্যোগ সবক্ষেত্রেই জনগণের পাশে থেকে শক্তি সাহস সহযোগিতা হাত বাড়িয়ে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছেন । ধন্যবাদ
আপনার মত জনদরদী, সৎ, যোগ্য ও আদর্শবান মেয়র সাড়া জীবন দেখ‌তে চাই। একজন স্বচ্ছ,পরিশ্রমী ও দক্ষ নেতার নাম জননেতা জনাব ইকরামুল হক টিটু ভাই। করোনা প্রতিরোধে আপনার প্রত্যেকটি উদ্যোগ মহানগরবাসীর হৃদয়ে সাড়া দিয়েছে।
ধন্য ময়মনসিংহ বাসী আপনার মতো সচেতন ও পরিশ্রমী একজন অভিভাবক পেয়ে,ধন্য আমরা আপনার মতো একজন স্বচ্ছ রাজনীতিবীদ পেয়ে।
মহান রাব্বুল আলামিন আমাদের কে করোনা থেকে রক্ষা করুক।
একজন প্রকৃত মানব প্রেমিক মানুষ যিনি নিজের কি হবে না হবে তার তোয়াক্কা না করেই জনতার কল্যাণে নিজেকে সর্বদা নিয়োজিত রেখেছেন তিনি বৃহত্তর ময়মনসিংহের আপামর জনসাধারণের বিশ্বস্ত বন্ধু জনবন্ধু জননেতা জনাব মোঃ ইকরামুল হক টিটু ভাই
0





ময়মনসিংহে তিনজনের করোনা ভাইরাস সনাক্ত

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা বিষয়ক জরুরি তথ্য

করেনা সংকটে হত দরিদ্রদের সাহায্যে এগিয়ে আসলেন বিমান চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসান

ময়মনসিংহে আকুয়ায় র‌্যাবের অভিযানে টিসিবির সয়াবিন তেল উদ্ধার : আটক

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় ৫ জন করোনায় আক্রান্ত !

ময়মনসিংহের জাস্টিন ট্রুডু; মেয়র ইকরামুল হক টিটু

বৈশ্বিক দুর্যোগে ধর্ম-বর্ণ ভেদাভেদ ভুলে আসুন সকলের পাশে দাঁড়াইঃ সাজ্জাদুল হাসান

 জয়িতা শিল্পী : মানবতার এক ফেরীওয়ালা

ভেস্তে গেলো ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের ত্রাণ বিতরণ

করোনা সংকটে ময়মনসিংহে ১,৯১২টন চাল ও প্রায় ৭১ লক্ষ টাকা বরাদ্দ

Top