[google-translator]
আবহাওয়া:
anindabangla

৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , বৃহস্পতিবার , ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ


অনিন্দ্যবাংলা ডেস্ক: অনেক সতর্কতার সঙ্গে রাজধানীর উত্তরা দিয়াবাড়ি এলাকায় মেট্রোরেলের ডিপোর রেলওয়ে ট্র্যাকে বসানো হয়েছে প্রথম মেট্রোরেল কোচ।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বেলা ১২টা ৫ মিনিটে সিস্টেমেটিক ওয়েতে এটা বসানো হয়েছে।

এখন সব কিছু চেক করা হচ্ছে । এর আগে ঢাকায় চালানোর জন্য মেট্রোরেলের এক সেট ট্রেনের কোচ সকাল ৮টা থেকে ডিপোতে নেওয়া শুরু হয়।

ক্রেন দিয়ে কোচ লরিতে তোলার কাজ শুরু হয়। এরপর এটি দিয়াবাড়ির ডিপোর রেলওয়ে ট্র্যাকে বসানো হয় ১২টা ০৫ মিনিটে।

বৃহস্পতিবার মোট চারটি কোচ ডিপোতে নিয়ে যাওয়া হবে। জেটিতে অবস্থানরত বাকি দুইটি কোচ নামিয়ে কাল শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) সকালে ডিপোতে নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

বুধবার বিকেলে দুটি বার্জ দিয়ে এক সেট ট্রেনের মোট ছয়টি কোচ ঢাকায় এসেছে।

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) অধীনে ঢাকা মেট্রোরেল প্রকল্প (লাইন-৬) বাস্তবায়িত হচ্ছে।

ডিএমটিসিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচাল এম এন সিদ্দিক বলেন, আজকে আমাদের আনন্দের খবর। বেলা ১২টা ০৫ মিনিটে প্রথম মেট্রোরেল কোচ ডিপোর রেলওয়ে ট্র্যাকে বসিয়েছি। খুব সতর্কতার সঙ্গে কাজগুলো করছি। বৃহস্পতিবার চারটি রেলকোচ ডিপোতে আসবে বাকি দুটি শুক্রবার আসবে। আমাদের এমন প্রকল্প বাস্তবায়নের যেহেতু পূর্ব অভিজ্ঞতা নেই সেহেতু কাজগুলো সতর্কতার সঙ্গে করছি।

তিনি আরও বলেন, রেলওয়ে ট্র্যাকে বা রেলপথে কোচগুলো বসানোর পর অনেক কাজ আছে সেগুলো করা হবে। অনেক কিছু পরিক্ষা করতে হবে বৈদ্যুতিক লাইন সংযোগ করতে হবে।

ডিএমটিসিএল সূত্র জানায়, সব মিলিয়ে ২৪ সেট ট্রেনের মোট ব্যয় হয়েছে দাম চার হাজার ২৫৭ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। ট্রেনগুলোয় ডিসি ১৫০০ ভোল্টেজ বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা থাকবে। স্টেইনলেস স্টিল বডির ট্রেনগুলোয় থাকবে লম্বালম্বি সিট। প্রতিটি ট্রেনে থাকবে দুটি হুইলচেয়ারের ব্যবস্থা। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত প্রতিটি বগির দুই পাশে থাকবে চারটি করে দরজা। জাপানি স্ট্যান্ডার্ডের নিরাপত্তাব্যবস্থা সংবলিত প্রতিটি ট্রেনের যাত্রী ধারণক্ষমতা হবে এক হাজার ৭৩৮ জন। ভাড়া পরিশোধের জন্য থাকবে স্মার্ট কার্ড টিকিটিং ব্যবস্থা।

মেট্রোরেলে ২৪টি ট্রেন প্রতি ঘণ্টায় আপ ও ডাউন রুটে ৬০ হাজার যাত্রী আনা নেওয়া করতে সক্ষম হবে। কারণ অধিকাংশ মানুষ বসার থেকে দাঁড়িয়ে ভ্রমণে বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করবে বলে দাবি করছে ডিএমটিসিএল।





Top